‘সাহো’ মুক্তির আগে নয়া জল্পনা, রাজনীতিতে যোগ দিচ্ছেন প্রভাস!

bangla bangla news Bengali news Entertainment
৩০ আগস্ট মুক্তি পাচ্ছে ‘সাহো’। মাত্র দিন কয়েকের অপেক্ষা। ছবির প্রচারের জন্য এখন যারপরনাই ব্যস্ত অভিনেতা প্রভাস এবং শ্রদ্ধা কাপুর। আর ‘সাহো’র প্রচারের মাঝেই প্রভাস জড়ালেন নয়া বিতর্কে। শুধু বিতর্ক নয়। বলা ভাল, পড়লেন রাজনৈতিক পার্টির রোষানলে।

‘সাহো’ মুক্তির আগে নয়া জল্পনা, রাজনীতিতে যোগ দিচ্ছেন প্রভাস!

তেলুগু দিশম পার্টির নজরে পড়েছে প্রভাসের আগামী ছবি ‘সাহো’। সেই ছবির নেতিবাচক প্রচার করতে ময়দানে নেমে পড়েছে দিশম পার্টির সোশ্যাল মিডিয়া উইং। সূত্রের খবর, দিন কয়েক আগেই ছবির প্রচারে গিয়ে প্রভাস অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ওয়াইএসআর কংগ্রেস পার্টির জগন মোহন রেড্ডির প্রশংসা করেছিলেন। আর এতেই ঘটে বিপত্তি। ‘বাহুবলী’ অভিনেতার মন্তব্যে বেজায় চটে যান তেলুগু দিশম পার্টির নেতারা। কারণ, তাঁদের প্রসঙ্গে কোনও কথাই উত্থাপন করেননি প্রভাস। এরপরই টিডিপি নেতাদের রোষানলে পড়েন অভিনেতা। আর যার জন্য প্রভাস অভিনীত ‘সাহো’র জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় নেতিবাচক প্রচার করা শুরু করে দেয় সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক দল। জগন মোহনের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হওয়ায় অনেকেরই মনে চাড়া দিয়েছে প্রভাসের রাজনীতিতে যোগদানের প্রশ্ন।

তাহলে কি সত্যি সত্যি অভিনয়ের পাশাপাশি রাজনীতির ময়দানেও দেখা যাবে প্রভাসকে? সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এই প্রসঙ্গে মুখ খুললেন দক্ষিণী অভিনেতা। প্রভাসের কথায়, তাঁর এক কাকা সক্রিয়ভাবে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। যখন তাঁর বয়স ১০ বছর ছিল, তখন নিজেদের পৈতৃক বাড়িতে গিয়ে বেশ কয়েকবার দলের প্রতি কাকার নিষ্ঠা এবং কাজকর্ম দেখেছেন খুব কাছ থেকে। কিন্তু রাজনীতির দুয়ারে প্রভাস? একেবারে নৈব নৈব চ! এমনটাই জানান খ্যাতনামা এই অভিনেতা।

অন্যদিকে, দক্ষিণের প্রবীন অভিনেতা কৃষ্ণম রাজুর স্ত্রী তথা প্রভাসের কাকিমা শ্যামলা দেবী সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে প্রভাসের রাজনীতিতে যোগদানের কথা উড়িয়ে দেননি। তাঁর মতে, প্রভাস রাজনীতিতে আসবেন কি না তা অবশ্য এখনই বলা যাচ্ছে না। তবে ভবিষ্যতে সেরকম পরিস্থিতি আসলে ‘সাহো’ অভিনেতাকে দেখা যেতেই পারে রাজনীতির ময়দানে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *