চোখ ধাঁধানো ফ্রি-কিকে মোহিত করলেন মেসি

bangla news Bengali news Sports sports news
জুভেন্টাস, রিয়াল মাদ্রিদ, বায়ার্ন মিউনিখ, চেলসি। ইউরোপের তাবড় তাবড় ক্লাবকে চিৎ করে অগ্রণী ফুটবল সম্রাট লিওনেল মেসি! কী ভাবে? পরিসংখ্যান বলছে ২০১৪ সাল থেকে ইউরোপের প্রথম পাঁচ লিগের থেকেও ফ্রি-কিক গোলের নিরিখে এগিয়ে লিওনেল মেসি! অবিশ্বাস্য হলেও এটাই সত্যি। শেষ ৪বছরে ফ্রি-কিক থেকে মেসির গোলসংখ্যা ১৯। সেই তুলনায় জুভেন্টাসের ফ্রি-কিকে গোল ১৮, রিয়াল মাদ্রিদ, লিঁয়-র ১৪, বায়ার্ন মিউনিখের ১৩, পিএসজি-র ১২, চেলসি, লিভারপুলের ১১টি করে গোল রয়েছে। শনিবার রাতে লা লিগায় এসপ্যানিওল ম্যাচ জুড়ে শুধুই মেসি ঝড়। যেমন পাসিং তেমনই গোলের জাদু। যে আঘাতে বিধ্বস্ত এসপ্যানিওল। ৪-০ গোলে বিপক্ষকে উড়িয়ে লা লিগার ম্যাচে দুরন্ত জয় মেসি অ্যান্ড কোম্পানির। এই ম্যাচে সেরা মুহূর্ত মেসির দুটি গোলই বিশ্বমানের ফ্রি-কিক। প্রথম গোলটি ১৭ মিনিটে। গোলকিপারের দ্বিতীয় পোস্টের কোণ বরাবর সোনায় বাঁধানো শট।

৬৫ মিনিটে মেসির দ্বিতীয় গোলটিও যেন প্রথম গোলের পুনরাবৃত্তি। ২৭মিটার দূরত্ব থেকে গোলটি নিঁখুত দক্ষতা এবং প্রতিভার মিশ্রণ। এসপ্যানিওল গোলরক্ষক দিয়েগো লোপেজের শেষ চেষ্টাও ব্যর্থ হয়। কাতালান ডার্বিতে যাবতীয় আলো কাড়লেন আর্জেন্টিনীয় সুপারস্টার। ডেম্বেলের ২৬ মিনিটের গোলের সময়ও মেসির সোনায় বাঁধানো থ্রু পাস এসপ্যানিওল রক্ষণকে বোকা বানায়। ৪৫ মিনিটে ডেম্বেলের পাস থেকে গোল সুয়ারেজের। প্রথমার্ধের শেষেই ৩-০ এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। সেখানেই ম্যাচে অর্ধেক দখল নেয় এরনেস্তে ভেলভের্ডের টিম। ৪-০ জয়ের পর লি লিগায় ১৫ ম্যাচে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে বার্সেলোনা। লা লিগার ম্যাচে জয়ী রিয়াল মাদ্রিদও। হুয়েসকাকে ১-০ গোলে হারিয়েছে সান্তিয়াগো সোলারির দল। গ্যারেথ বেলের ৮ মিনিটের গোল লস ব্ল্যাঙ্কসকে ১-০ এগিয়ে দেয়। যা রিয়ালের গুরুত্বপূর্ণ ৩ পয়েন্ট নিশ্চিত করে।

প্রিমিয়ার লিগের রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে ম্যাঞ্চেস্টার সিটিকে ২-০ গোলে উড়িয়ে জয়ী চেলসি। সপ্তাহ শেষের হাইভোল্টেজ ম্যাচে ব্লুজদের হয়ে গোল করেছেন ফরাসি এনগলো কান্তে এবং দাভিদ লুইস। স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে এনগলোর প্রথম গোলের সময় দারুণ পাস দেন চেলসির বেলজিয়ান তারকা ফুটবলার ইডেন হ্যাজার্ড। সাজানো পাস থেকে দলকে ১-০ এগিয়ে দেন ফরাসি। দ্বিতীয় গোলটি আসে বিতর্কিত কর্নার থেকে। রস বার্কলের শট ম্যানসিটির মাহরেজের বুটের ছোঁয়া লেগে বাইরে গেছে কি না, সেই নিয়ে রেফারির প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেন সিটি কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা। সেই কর্নার থেকেই হেডে গোল করে দলকে ২-০ এগিয়ে দেন ব্রাজিলীয়। ম্যাচে আধিপত্য রাখলেও গোল করতে ব্যর্থ ম্যান সিটির লেরয় সানে, রিয়াদ মাহরেজ, দাভিদ সিলভারা। চলতি প্রিমিয়ার লিগে এই প্রথম হার ম্যান সিটির।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *